পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (PSTU) ভিসি সহ বিভিন্ন শিক্ষককে আটকে রেখে হচ্ছে রেগিং এর পক্ষে আন্দোলন

জানুয়ারি মাসের তেইশ তারিখে রেগিং করার কারণে দ্বিতীয় বর্ষের 15 জন শিক্ষার্থী বহিষ্কার হয় উক্ত বহিষ্কারের ধারায় বর্তমানে তাদের মুক্তির দাবিতে ক্যাম্পাসে চলছে রেগিং এর পক্ষে আন্দোলন

বর্তমান বাংলাদেশের সরকারের নির্দেশ অনুসারে রেগিং এর শাস্তির ব্যবস্থা রয়েছে। সর্বোচ্চ শাস্তি কারাদণ্ড থেকে শুরু করে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কারের নির্দেশ রয়েছে।

23 শে জানুয়ারি 15 জন বহিষ্কার হলেও থেমে থাকেনি ক্যাম্পাসের রেগিং । বিভিন্ন প্রকার বিভিন্ন পদ্ধতিতে প্রথম বর্ষের ছাত্রদের উপর নির্যাতন চালানো হয় । উক্ত নির্যাতনের শিকার হয়ে বিভিন্ন শিক্ষার্থীর শারীরিক এবং মানসিক বিভিন্ন প্রকারের অসুবিধা দেখা দিয়েছে ।

চলতি মাসের 15 তারিখ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল এর প্রথম বর্ষের এক ছাত্রকে অনিচ্ছা সত্ত্বেও গাঁজা খেয়ে মাতাল করা হয় উক্ত সময়ে সেই সময়ে ছেলেটি অচেতন অবস্থায় ছটফট করতে থাকে। রাত তিনটার দিকে ছেলেটিকে সেন্ট্রাল হসপিটালে পাঠানো হয় ।

দ্বিতীয় বর্ষ সহ প্রথম বর্ষের ছাত্রদের আন্দোলনে করানো হচ্ছেএবং ওই 15 জনের মুক্তির দাবি করা হচ্ছে ।

উক্ত ব্যবস্থার ধারাবাহিকতায় শিক্ষকেরা বিকেল তিনটায় মিটিংয়ের আয়োজন করে প্রশাসনিক ভবনে উপস্থিত হন উক্ত সময়ে আন্দোলনকারীরা শিক্ষকদের প্রশাসনিক ভবনসহ বিভিন্ন গেটে তালা লাগিয়ে দেয়। যতক্ষণ পর্যন্ত নিঃশর্ত মুক্তি প্রদান করা না হচ্ছে ততক্ষণ পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যেতে থাকবে এরকম তথ্য পাওয়া গেছে।

Leave a Reply